অ্যান্টার্কটিকাতে স্কটল্যান্ডের আকারের একটি গর্তের সন্ধান পেলেন বৈজ্ঞানিকরা

স্কটল্যান্ড হলো একটি বড় দেশ। 80,077 বর্গ কিলোমিটার জুড়ে বিস্তৃত রয়েছে এই দেশ। আচ্ছা ভাবুনতো যদি এই সমান আকারের ছিদ্র পৃথিবীতে দেখা যায় তাহলে কি হবে এই গর্তের মধ্যে কয়েক সংখ্যক গাড়ি, বাড়ি, মানুষ পড়ে যাবে।

theladbiblegroup

<>

এই ধরনের একটি গর্ত হয়েছে পৃথিবীতে। কিন্তু এই গর্তটি পৃথিবীর এমন জায়গা হয়েনি যেখানে মানুষ বসবাস করে। এটা হয়েছে অ্যান্টার্কটিকাতে। কিন্তু এটা চিন্তার বিষয়। কারণ অ্যান্টার্কটিকা আমাদের পৃথিবীরই অংশ। সেখানের বরফ যদি গলতে থাকে তাহলে এটা আমাদের কাছে খুবই চিন্তার বিষয়।

আগের মাসে অ্যান্টার্কটিকার Weddell Sea- মাঝখানে এই গর্ত অ্যান্টার্কটিকা উপকূলের অনেক ভেতরে রয়েছে। টরন্টো বিশ্ববিদ্যালয়ের কেট মুর বলেছেন,

‘এই আইস এজ শত শত কিলোমিটার ভেতরে রয়েছে। যদি স্যাটেলাইট ইমেজ না থাকতো তাহলে আমরা এই গর্ত সম্পর্কে কখনোই জানতে পারতাম না।’

nationalgeographic

<>

এই ধরনের গর্তকে বলা হয় পলিনিয়া। পলিনিয়া হলো এমন একটি স্হান যেখানে চারিদিক ঘিরে রয়েছে তুষার জল। পলিনিয়া প্রথমবার 1970 সালে দেখা যায়। বর্তমানে এই পলিনিয়া দেখা গেছে অ্যান্টার্কটিকাতে। যেটা 70 দশকের পলিনিয়া থেকে 5 গুণ বড়।

বিজ্ঞানীরা এই গর্তের কারণ সন্ধান করছেন। এটি লন্ডন শহরের তুলনায় 50 গুণ বড়। অন্য একটি ওয়েবসািট অনুযায়ী, এই গর্তটি তাসমানিয়া দেশ থেকে বড়। তাসমানিয়া এর আকার 68,401 বর্গ কিলোমিটার।

এই গর্তের কারণ খুঁজে বের করার জন্য বৈজ্ঞানিকরা গবেষণা করছেন। অন্যদিকে কিছু লোক বলছেন এটা এলিয়েনের কাজ।

<>

Loading...